Nirjonmela Desi Forum

Talk about the things that matter to you! Wanting to join the rest of our members? Feel free to sign up today and gain full access!

  • অত্যন্ত দু:খের সাথে নির্জনমেলা পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো যাচ্ছে যে, কিছু অসাধু ব্যক্তি নির্জনমেলার অগ্রযাত্রায় প্রতিহিংসা পরায়ন হয়ে পূর্বের সকল ডাটাবেজ ধ্বংস করে দিয়েছে যা ফোরাম জগতে অত্যন্ত বিরল ঘটনা। সকল প্রকার প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা রাখা সত্বেও তারা এরকম ধ্বংসাত্মক কর্মকান্ড সংঘটিত করেছে। তাই আমরা আবার নুতনভাবে সবকিছু শুরু করছি। আশা করছি, যে সকল সদস্যবৃন্দ পূর্বেও আমাদের সাথে ছিলেন, তারা ভবিষ্যতেও আমাদের সাথে থাকবেন, আর নির্জনমেলার অগ্রনী ভূমিকায় অবদান রাখবেন। সবাইকে সাথে থাকার জন্য আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। বি:দ্র: সকল পুরাতন ও নুতন সদস্যদের আবারো ফোরামে নুতন করে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। সেক্ষেত্রে পুরাতন সদস্যরা তাদের পুরাতন আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।

বন্ধুর ফুটবল মা

Rainbow007

Rainbow007

Support Team
Staff member
Supporter
Joined
Mar 5, 2018
Threads
257
Messages
10,614
Credits
338,235
Doughnut
Birthday Cake
Birthday Cake
Satellite Antenna
Satellite Antenna
Rose
বন্ধুর ফুটবল মা


আমি তখন খুব বড়ো না । বয়স আনুপাতিক তেরো হবে। নবম শ্রেণিতে পড়ি। কিছু খারাপ সঙ্গে পড়ে অনেক বড়ো বড়ো ব্যাপার জেনে গিয়েছিলাম। যেটা তারা বেশি আলোচনা করতো তা হল মেয়েদের শরীরের কথা। কার কোনটা বড়ো—এই সব আর কি? পড়াশুনা খারাপ হত না তাই রেজাল্ট ভালই হত।

সেবার ভাল রেজাল্টের খবর নিয়ে যেদিন বাড়ি ফিরলাম দেখলাম বাড়ির উঠানে একটি বছর দশের ছেলে খেলা করছে। আমার ফুটবল নিয়ে খেলছে দেখে মাথা একটু গরম হয়ে গেল। গিয়ে বলটা কেড়ে নিলাম তো ছেলেটা হু হু করে কেঁদে উঠলো । তার কান্না শুনে আমার মা বেরিয়ে এল। সাথে যাকে দেখলাম তাকে দেখে আমার মুখ হাঁ হয়ে গেল। মুখটা খুব সুন্দর ।

এতটাই যে দেখলে চুমু খেতে অবশ্যই মন চাইবে।নীল সাড়ি পরিহিত সেই রমণীর নাভি চোখে পড়ল ,কি গোল গর্ত যেন গভীর কুয়ো, বুকটা যেন বড়ো ডাব/তরমুজ যেন বাঙালি নায়িকা ইন্দ্রাণী হালদারের মাই, আর নিচের অংশে অর্থাৎ পাছাটা এত বড় সেটার মিল হিন্দি নায়িকা ইলিয়ানা দিক্রুজের পাছার সাথে মেলে বা তারও বড়।

যাই হোক আমি যখন একদৃষ্টিতে তাকিয়ে আছি তখন মা বলল কল্পনা আন্টি মানে উনি ওই ছেলেটির মা । আমি তখনি ছেলেটিকে বল ফেরত দিয়ে দিলাম কারন আমার তখন অন্য ফুটবল চাই। তাই বাচ্চাকে চটানো যাবে না , না হলে তার মাকে পাব না। ওই মহিলা আর তার স্বামী আমাদের আধা গ্রামে বাড়ি কিনেছেন।

মহিলার নাকি শহুরে পরিবেশ ভালো লাগে না। আর আধা গ্রাম এজন্য বলেছি যে এখানের যোগাযোগ ভাল তাই ওনার স্বামির রডের ব্যবসা ভাল জমবে।এরপর আরো বিস্মিত হলাম দেখে যখন ওনার স্বামী বেরিয়ে এল একটি বছর দুয়ের শিশুকে নিয়ে। জানা গেল এটা ৪৫ বছরে স্বামির আর ৩৬ বছরের মহিলার বেবি কন্যা তিন্নি।

যাইহোক আমরা তার প্রতিবেশি। সেই সুবাদে ঘরে ওঠার আগে একটা পুজা দিতে হয়। যাই হোক পুজার জন্য পুরোহিত আসল । পুরোহিত এসে বলল ওই মহিলাকে ঠাকুরের সামনে একা পুজা দিতে হবে। তখন কল্পনা আন্টি পুজা দিতে বসলেন । আমরা বাড়ির অন্যদিকে। আমি একটু কৌতূহলী হয়ে ওই ঘরের মধ্যে পা টিপে টিপে গিয়ে দেখলাম পুরহিত একমনে দেখছে আন্টিকে আর মন্ত্র বলছে ভুল ভাল।

আমি আস্তে আস্তে দেয়ালের গা ঘেঁসে পুরিহিতের পাশে কোনার কাছে আলমারির পাশের দিকে গেলাম যেখানে কেউ আমায় দেখতে পাবে না কিন্তু আমি সব দেখতে পাব। জা দেখলাম তা আগে দেখিনি। কল্পনা আন্টি একটি সাদা সাড়ি পরে আছে গায়ে ব্লাউজ নেই। পরে জেনেছিলাম এটা পুরোহিত বলেছিলেন।

Hidden content
You need to reply to this thread or react to this post in order to see this content.
Hidden content
You need to reply to this thread or react to this post in order to see this content.


 
Top