Nirjonmela Desi Forum

Talk about the things that matter to you! Wanting to join the rest of our members? Feel free to sign up today and gain full access!

  • অত্যন্ত দু:খের সাথে নির্জনমেলা পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো যাচ্ছে যে, কিছু অসাধু ব্যক্তি নির্জনমেলার অগ্রযাত্রায় প্রতিহিংসা পরায়ন হয়ে পূর্বের সকল ডাটাবেজ ধ্বংস করে দিয়েছে যা ফোরাম জগতে অত্যন্ত বিরল ঘটনা। সকল প্রকার প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা রাখা সত্বেও তারা এরকম ধ্বংসাত্মক কর্মকান্ড সংঘটিত করেছে। তাই আমরা আবার নুতনভাবে সবকিছু শুরু করছি। আশা করছি, যে সকল সদস্যবৃন্দ পূর্বেও আমাদের সাথে ছিলেন, তারা ভবিষ্যতেও আমাদের সাথে থাকবেন, আর নির্জনমেলার অগ্রনী ভূমিকায় অবদান রাখবেন। সবাইকে সাথে থাকার জন্য আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। বি:দ্র: সকল পুরাতন ও নুতন সদস্যদের আবারো ফোরামে নুতন করে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। সেক্ষেত্রে পুরাতন সদস্যরা তাদের পুরাতন আইডি ও পাসওয়ার্ড দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন।

দাবার চাল

Black Knight

I'm Who I'm
Staff member
Supporter
  • Member of the Month
  • Most Active Member
Joined
Mar 6, 2018
Threads
220
Messages
23,853
Credits
481,398
Time is money
Transfer
Structure
Megaphone
Map
Team
দাবার চাল
লেখক- Premik57


১.
আমাদের বংশ খুবই রক্ষনশীল ধরনের, ছোটবেলা থেকে কোনো অনিয়ম আমার চোখে পড়েনি, সকলেই ছিলেন ধর্মভীরু প্রকৃতির ৷
আমার দাদা ইফতেখারুদ্দিন চৌধুরী ছিলেন শান্তি নগরের জমিদার, সে সূত্রে বংশগত ভাবেই আমারা বিত্তবান ছিলাম ৷ আমার বাবা আখতারুদ্দিন চৌধুরী ছিলেন পরিবারে সবার ছোটো ৷ দাদা দাদী বড় জ্যাঠাদের সাথে থাকতেন,আর আমাদের পরিবার থাকতো আলাদা ৷
আমার মায়ের নাম ছিলো মোছাম্মত্ নাজনীন আক্তার তাদের বংশও ছিলো নামকরা, আমার নানা ছিলেন মাওলানা, সে সূত্রে মাও ভিষন ধর্মভীরু ছিলেন ৷
রক্ষনশীল পরিবারের কারনে মায়ের পড়ালেখা বেশিদূর এগুতে পারেনি ,ধর্মীয় ভাবে কিছুদূর পড়া শেষেই তার বিয়ের ব্যাবস্থা হয় ৷

মা ছিলেন অনন্য রুপের আদিকারি কিন্তু তার এরুপ বাহিরের লোকে কখনই দেখতে পায়নি ৷ ঘরের মধ্যেও তিনি হিজাব করতেন, আর বাহিরে বেরহওয়ার সময় বোরখা ৷
মায়ের উচ্চতা ৫.৪" এর মতো হবে ৷ মাকে যখন বিয়ে করে, তখন বাবার বয়স ছিলো ৩০ বছর ৷
বাবা নিজের পায়ে দাড়িয়ে তবেই বিয়ে করেছিলেন ৷
চকরিয়ায় তার ৮টি চিংড়ীর ঘের ছিলো, আর ৭টি লবনের মাঠ ৷ টেকনাফে বাবা বিশাল করে একটি বাংলো বানিয়েছেন , দাদাজানের এতো অর্থসম্পদ থাকা শর্তেও তিনি কখনো পরিশ্রম করতে দ্বিধা করেন নি ৷
মাকে যখন বিয়ে করে আনেন তখন তিনি অতটা পরিপূর্ণ ছিলেন না অর্থাত শারীরিকভাবে মা অনেক দূর্বল ছিলেন ৷ যারকারনে রতীক্রিয়ার সময় মা খুবই কষ্ট পেতেন ৷
আমার জন্মের সময় মায়ের অবস্থার অবনতি ঘটে তিনি প্রায় মৃত্যু সজ্জায় চলেগিয়েছিলেন, যদিও পরবর্তীতে সকলের দোয়ায় রিকভার করে উঠেছিলেন ৷
এঘটনায় বাবা অনেকটাই ভয়ে পেয়ে যান, কারন তিনি মা কে অনেক ভালোবেসে ফেলেন যার কারনে তিনি দীর্ঘ মেয়াদী পরিবার পরিকল্পনা পদ্ধতি গ্রহন করেছিলেন ৷
এদিকে আমি বড় হতে থাকলাম,
ছোট থেকেই আমি ছিলাম দূরন্ত প্রকৃতির, কোনো নিয়মের ধার ধারতাম না ৷ কিন্তু বাবাকে ভিষন ভয় পেতাম, তার ভয়ে এক ওয়াক্ত নামাজও মিস হতো না ৷
প্রথমে আমি চট্রগ্রামের নামকরা একটা মাদ্রাসায় ভর্তি হই কিন্তু বাবা আমাকে অনেক ভালোবাসতেন যার কারনে তিনি আমাকে এলাকার মাদ্রাসাতেই ভর্তি করালেন, আর আমিও বাড়িতে থেকে ছোট থেকেই পড়ার পাশাপশি বাবার সাথে গিয়ে তার ব্যাবসা সমূহ দেখতে থাকি ৷
 
These are the rules that are to be followed throughout the entire site. Please ensure you follow them when you post. Those who violate the rules may be punished including possibly having their account suspended.

যারা কমেন্ট করবেন, দয়া করে বানান ঠিক রাখুন। উত্তেজিত অবস্থায় দ্রুত কমেন্ট করতে গিয়ে বানান ভুল করবেন না। আমরা যারা কমেন্ট পড়তে আসি, আমাদের কমেন্ট পড়তে অনেক অসুবিধা হয়।
Top